অবাস্তব কাহিনী, অশ্লীলতা-বীভৎসতা-নকল প্রবণতার কারণে দর্শক হারিয়েছে চলচ্চিত্র

বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের দশা কতটা করুণ তা দেশের সিনেমা হলগুলোর বেহাল দশাই বলে দেয়। এই শিল্পের প্রসারের সাথে সাথে দেশে বাণিজ্যিক সিনেমা হলের সংখ্যা বাড়তে থাকে এবং একসময় এমন হলের সংখ্যা দাঁড়ায় পনেরোশোতে। গত প্রায় আড়াই দশকে একে একে বহু সিনেমা হল কাঙ্খিত বাণিজ্য হচ্ছেনা বলে বন্ধ হতে শুরু করে। এভাবে এখন সিনেমা হলের সংখ্যা সারাদেশে আড়াইশোতে এসে ঠেকেছে। সিনেমা হলগুলো হয়ে যাচ্ছে শপিংমল বা বহুতল আবাসিক ভবন। আজও টিকে থাকা হলগুলো ধুকছে।

আরো দেখুন

ওষুধ শিল্পে বৈপ্লবিক পরিবর্তন

দেশের ওষুধ শিল্পের গল্প যেনো একটি বিপ্লবের গল্পের মতো। স্বাধীনতার পর মূলত বিদেশি ওষুধের ওপর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *